Home / ফটো গ্যালারি / আনুশকা শেঠীর হট গ্লামার প্রমান করেছে যে তিনি বলিউড অভিনেত্রীদের চেয়ে কোন অংশেই কম নয়…

আনুশকা শেঠীর হট গ্লামার প্রমান করেছে যে তিনি বলিউড অভিনেত্রীদের চেয়ে কোন অংশেই কম নয়…

এটি একটি মহৎ কাজ ছিল। ভারতের ঐতিহাসিক চলচ্চিত্র ‘বাহুবালি’ । এটির সেট, অ্যানিমেশন, ভিএফএক্স, বাহুবালির চরিত্র, দেবসেনা, কাটাপ্পা, ভল্লালদেভের মত অভাবনীয় চরিত্রগুলি সিনেমাটি মুক্তি পাওয়ার আগেই জনপ্রিয় হয়ে ওঠে ।

কোন সন্দেহ নেই, প্রভাষ, রানা দাগুবতী, আনুশকা শেঠীর মত অভিনেত্রী এই চলচ্চিত্রে পরিপূর্ণতা দিয়ে অভিনয় করেছেন।

যাইহোক, যখন সবাই প্রভাষ মানে বাহুবালীর চরিত্র নিয়ে মেতে উঠেছিল, তখন এই ছবিতে আর একটি শক্তিশালী চরিত্র ছিল দেবসেনার, যেটি অভিনেত্রী আনুশকা শেঠী অভিনয় করে আমাদের মনোযোগ আকর্ষণ করেছিলেন । তিনি চলচ্চিত্রের একজন রাজকুমারী ছিলেন যিনি তার মাথা সোজা রাখতেন, নিজের সিধান্তগুলি নিজেই নিতেন এবং ভয়ের আগে কখনই মাথা নত করতেন না । তার দৃঢ় ভূমিকা সিনেমাটির মধ্যে সেরা জিনিস ছিল।

যারা জানেন না তাদের জন্য, আসুন আমরা আপনাকে বলি আনুশকা দক্ষিণ ভারতীয় চলচ্চিত্র শিল্পের একটি জনপ্রিয় মুখ। বাহুবলির পরে তিনি বলিউডে তার ফ্যান বেস প্রসারিত করেছেন ।

সুতরাং, বাহুবলি’র রানী আনুশকা শেঠীর জীবনের দিকে নজর দেওয়া যাক।

দেখুন দেবসেনা মানে আনুশকা শেঠীকে

তিনি রাজকুমারী দেবসেনার চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন বাহুবালি সিনেমাতে । তার সৌন্দর্য এবং সাহসী অভিনয় দেখে সবাই তার পদানত হয়েছিল ।

দক্ষিণ ভারতীয় সিনেমাতে আনুশকা একটি জনপ্রিয় নাম

অনেকদিন ধরেই তেলেগু সিনেমাতে তেলেগু অভিনেত্রী আনুশকা খুবই পরিচিত । কিন্তু রাজকুমারী দেবসেনার মতন এক সাহসী রাজকুমারীর চরিত্রে অভিনয় করে তিনি বলিউডেও জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন।

এই তামিল-তেলেগু অভিনেত্রী নায়িকা হওয়ার আগে একজন যোগব্যায়াম প্রশিক্ষক ছিলেন ।

আরেকটি অজানা তথ্য হল আনুশকার আসল নাম হলো সুইটি শেঠী, কিন্তু তিনি তার নাম পরিবর্তন করেন এই ইন্ডাস্ট্রিতে যোগ হওয়ার পর।

২০১৫ সালে তিনি হায়দ্রাবাদের সবচেয়ে যোগ্য নারী হিসেবে ভোট পান ।

চিত্তাকর্ষক সুন্দরী লাইমলাইট ব্যাপারে বলেন “আমি সবসময় বলেছি আমি কোন খেলার নম্বরে বিশ্বাস করিনা, এখনো আমি কোন লিস্ট বা পদমর্যাদায় মনোযোগ দিয়ি না । কিন্তু এখন আমি মনে করি যে, মানুষ আসলে আমার জন্য ভোট দেওয়ার সময় বের করে ! এটাকে আমাকে আরোও অনেক বিশেষ করে তুলেছে।”

আনুশকা তার দুরন্ত-চঞ্চল, হাসমুখ চরিত্রের জন্যই দক্ষিণ ভারতীয় সিনেমাতে জনপ্রিয় ।

কিন্তু তিনি বাহুবালি সিনেমায় দেবসেনার চরিত্রটি অভিনয় করে বুঝিয়ে দিয়েছেন যে তিনি বিভিন্ন রকম চরিত্রে অভিনয় করতে সক্ষম।

তার সাহসী আন্দাজ এবং ‘স্টেরিটাইটোপ ভঙ্গ’ মনোভাবের জন্য তিনি প্রশংসা অর্জন করেছেন ।

তার একটি সিনেমা ‘Size Zero’ এর জন্য তিনি ২০ কিলো ওজন বাড়িয়েছিলেন কিন্তু কখনোই মোটা হওয়ার পোশাক পরেননি।

তিনি তামিল সিংঘাম সিনেমাতেও ছিলেন

জনপ্রিয় তামিল সিনেমা সিংঘাম আনুশকা একটি মুখ্য নারী চরিত্রের ভূমিকায় ছিলেন। একটি পুরুষকেন্দ্রিক সিনেমা হওয়া সত্বেও তিনি তার অভিনয় দিয়ে বুঝিয়ে দিয়েছিলেন যে তিনি একজন দক্ষ অভিনেত্রী।

তার সেই উফফফ! গুন

আনুশকাকে তার সুগঠিত শরীরে একটি সুইমিং কস্টিউম পড়ে প্রথমবার দেখা গিয়েছিল ‘বিল্লা’ সিনেমাতে । এই সিনেমাতে তার বিপরীতে প্রভাষকে মুখ্য অভিনেতা হিসেবে স্বাক্ষর করা হয়েছিল এবং এই সিনেমার পরিচালক ছিলেন মিঃ মেহের রমেশ । এই সিনেমাটিতে তার সৌন্দর্য এমনভাবে ফুটে উঠেছিল যে সিনেমাটি মুক্তি পাওয়ার পরই সেটির চর্চা চারিদিকে ছড়িয়ে পরেছিল ।

তিনি শখ সম্পর্কে প্রগতিশীল!

আমরা জানিনা যে আনুশকা একজন বাইক প্রেমি যেটি দারুন ব্যাপার । তিনি অবশ্যই একজন সাহসী মহিলা ।

যখনই তাকে তার সৌন্দর্যের রহস্যের কথা জিজ্ঞেস করা হয় তখন তিনি বলেন…

তিনি সবসময় জলকে প্রাধান্য দেন । তিনি বিশ্বাস করেন যে যথেষ্ট পরিমাণে জল খেলে প্রত্যেকেই ত্বকের জেল্লা বাড়ে ।

টালিউডে আনুশকা একজন সর্বোচ্চ বেতনভোগী অভিনেত্রী ।

তার উচ্চ প্রদত্ত রাশি হলো ৩ থেকে ৫ কোটি একটি সিনেমার জন্য। তিনি একটি নতুন সিনেমায় কাজ করছেন যার নাম হলো ‘ভাগমতী’ যেটি একটি মর্ডান সময়ের রহস্যের সিনেমা । এটি পরিচালনা করছেন জি. অশোক ।

তার সমস্ত ছবি দেখার পর অনায়াসেই বলা যায় তিনি বলিউডের কোন অভিনেত্রীর থেকে কম নন ।

তারা অভিন্ন সৌন্দর্য সর্বদাই তার সুন্দর্যকে ধরে রাখতে পেরেছে ।

অগুন্তি পুরস্কার পেয়েছেন তিনি তার ক্যারিয়ারে ।

তিনি শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রীর নন্দী পুরস্কার পান অরুন্ধতী সিনেমায় অভিনয় করার জন্য । আনুশকা শেটী অবন্তি ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন। এই মুহূর্তে তিনি ১৫ বছর তামিল সিনেমাতে কাটাচ্ছেন।

তার পরিবারের সম্বন্ধে

আনুশকার বাবার নাম হল এন. এন ভাইটাল শেঠী এবং তার মায়ের নাম শ্রী প্রফুল্ল। তার দুই ভাই হলেন সাই রমেশ শেঠী এবং গুনঞ্জন শেঠী । তিনি ব্যাঙ্গালোরের স্কুলে পড়াশোনা সম্পন্ন করেন এবং ব্যাঙ্গালোরের মাউন্ট কারমেল কলেজ থেকেও বিসিএ (ব্যাচেলর অফ কম্পিউটার অ্যাপ্লিকেশন) ডিগ্রি পেয়েছেন।

সেই দিনটি বেশি দূরে নেই যখন আমরা আনুশকা শেঠী কে বলিউড সিনেমাতে অভিনয় করতে দেখবেন ।

সদ্য এত জনপ্রিয়তা এবং তার অপরূপ সুন্দর রূপের জন্যও এটা বলা যেতে পারে যে খুব শিগগিরই আমরা তাকে বলিউড সিনেমা দেখতে পাবো ।

About myadmin

Check Also

সোশ্যাল মিডিয়া তোলপাড় করা বলিউড এর ১০টি ছবি

অনেকেই ভালবাসেন নিজের পছন্দের তারকাদের, কখনোও বা আইডল (ভক্তির পাত্র) হিসেবেও স্থান দিয়ে দায় । …