Home / ফটো গ্যালারি / ইরেশ-মিম দম্পতির বিবাহোত্তর সংবর্ধনার অনুষ্ঠান! দেখুন ছবিতে

ইরেশ-মিম দম্পতির বিবাহোত্তর সংবর্ধনার অনুষ্ঠান! দেখুন ছবিতে

গায়ে কালো রঙের কোর্ট। হাতে লাঠি। মুখ ভরা হাসি নিয়ে একটি শিশুর পাশে এসে দাঁড়ালেন জনপ্রিয় অভিনেতা আলী যাকের। শিশুটিকে হাসতে হাসতে বললেন, ‘এই যে দাদু ভাই, বেশি করে খেও’। রোববার (১১ মার্চ) সন্ধ্যায় ছেলে ইরেশ জাকেরের বিবাহোত্তর সংবর্ধনার অনুষ্ঠানে এই ভাবেই খাবার টেবিলের সামনে হেঁটে হেঁটে আমন্ত্রিত অতিথিদের অভ্যর্থনা জানাচ্ছিলেন আলী যাকের।

সাজানো মঞ্চে লাজুক লাজুক হাসিতে রেঙে বসে আছেন বর ও কনে ইরেশ-মিম। ইরেশ পরেছিলেন কালো শেরওয়ানি আর মিম পরেছিলেন সোনালি রঙের শাড়ি। আগতে অতিথিদের ভালোবাসা ও শুভেচ্ছায় সিক্ত হচ্ছিলেন তারা। আর সলাজ হাসি দিয়ে ধন্যবাদ দিচ্ছিলেন সবাইকে। সেনা মালঞ্চের হল রুমে ঘুরে ঘুরে সবার সঙ্গে কথা বলছিলেন ইরেশের মা সারা যাকেরও।

ইরেশ যাকের ও মিমের কাছের বন্ধু, আত্মীয় ও এক ঝাঁক তারকার ভিড় সেখানে। হাজির হয়েছিলেন তাদের বিয়ের উকিল বাবা সংস্কৃতি মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর। আরও উপস্থিত ছিলেন তথ্য মন্ত্রী হাসানুল হক ইনু।

বিয়ের এই অনুষ্ঠানে দেখা গেল বেশ কজন তারকা দম্পতিকেও। তিশাকে সাথে নিয়ে হাজির হয়েছিলেন মোস্তফা সরয়ার ফারুকী। উপস্থিত ছিলেন মোরশেদুল ইসলাম, ফেরদৌসী মজুমদার, ত্রপা মজুমদার, আজাদ আবুল কালাম, শিহাব শাহীন, জাকিয়া বারী মম, ইন্তেখাব দিনার, বিজরী বরকতুল্লাহসহ অনেকেই।

এর আগে ৪ ফেব্রুয়ারি রোববার সন্ধ্যায় ঢাকার একটি কনভেনশন সেন্টারে ইরেশ ও মিমের বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হয়। শোনা গিয়েছিল নেপালের কাঠমান্ডুতে বউভাত অনুষ্ঠান করবেন তারা। কিন্তু অবশেষে আয়োজন করা হয়েছে দেশেই।

গত ২৭ জানুয়ারি সন্ধ্যায় ইরেশ-মিমের পরিবারের সদস্যরা একসঙ্গে বসে আংটি পড়ানো ও বিয়ের তারিখ চূড়ান্ত করেন। তবে ইরেশ-মিম দুজনের পরিচয় অনেক আগে থেকেই।

নাট্য ব্যক্তিত্ব আলী যাকের ও সারা যাকেরের ছেলে ইরেশ যাকের চলচ্চিত্র ও টিভি নাটকে অভিনয়ের পাশাপাশি নিয়মিত উপস্থাপনা করেন। শিহাব শাহিনের ‘ছুঁয়ে দিলে মন’চলচ্চিত্রে অভিনয় করে শ্রেষ্ঠ খল চরিত্রের অভিনেতা হিসেবে ২০১৫ সালের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন। জনপ্রিয় তারকা মিথিলার বোন মিম রশিদ কাজ করেন ক্যামেরার পেছনে।

About admin

Check Also

সোশ্যাল মিডিয়া তোলপাড় করা বলিউড এর ১০টি ছবি

অনেকেই ভালবাসেন নিজের পছন্দের তারকাদের, কখনোও বা আইডল (ভক্তির পাত্র) হিসেবেও স্থান দিয়ে দায় । …