২৪শে এপ্রিল, ২০১৮ ইং, ১১ই বৈশাখ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ৮ই শাবান, ১৪৩৯ হিজরী

গত শতকের এই সুপার সুন্দরী তারকারা এখন যেমন!, দেখুন ছবিতে

জানুয়ারি ১০, ২০১৮, সময় ২:৫১ অপরাহ্ণ

পৃথিবীতে কোনো কিছুই চিরস্থায়ী নয়। মানুষের ক্ষেত্রেও কথাটি সত্য! রূপ যৌবন, ধন সম্পত্তি সবই এক সময় কালের গর্ভে বিলীন হয়ে যায়। তবুও মানুষ সেসব ভুলে বর্তমানকে আকড়ে ধরে থাকতে চায়। কিন্তু সময়ের স্রোতের বিপরীতে চলার ক্ষমতা যে মানুষের নেই!

গত শতকের মধ্য ও শেষভাগে চলচ্চিত্রে যারা রূপ লাবন্যের পরশ বুলিয়ে দর্শকদের মোহিত করে রেখেছিলেন আজ তাদের অনেকেই গেছেন হারিয়ে। তার আগে হারিয়েছেন তাদের রূপ যৌবন। দেখে নিন, গত শতকের মোহিনী তারকাদের বর্তমান রূপ।

১. বেটি হোয়াইট: মার্কিন এই অভিনেত্রী ১৯৪০ সাল থেকে বিনোদন জগতে সদর্পে বিচরণ করেছেন। এমি এবং গ্র্যামি এওয়ার্ড পাওয়া এই অভিনেত্রীর বয়স এখন ৯৫ বছর।

২. সোফিয়া লরেন: ১৯৩৪ সালে জন্ম নেয়া ইতালির এই অভিনেত্রী এক সময় জনপ্রিয়তার শিখরে আরোহণ করেন। ১৯৫০ এর দশকে চলচ্চিত্রে প্রবেশ করা এই অভিনেত্রীকে ইতালির মেরিলিন মনরো বলেও ডাকা হতো। তিনিই প্রথম অভিনেত্রী যিনি ইংরেজি ভাষার কোনো ছবিতে অভিনয় না করেও তিনি জয় করেছিলেন একাডেমি পুরস্কার। পরে অবশ্য হলিউডের একাধিক ছবিতে কাজ করেন তিনি।

৩. জুডি ডেনচ: এখন অনেকেই তাকে জনপ্রিয় জেমস বন্ড সিরিজের ব্রিটিশ গুপ্তচর সংস্থার প্রধান ‘ম্যাডাম এম’ নামেই চেনেন। তবে যৌবনে তার পরিচিতি ছিল আবেদনময়ী অভিনেত্রী হিসেবেই। মঞ্চ থেকে উঠে আসা ইংরেজ এই অভিনেত্রী বিবিসি’সহ ছোট পর্দাতেও দাপটের সঙ্গে অভিনয় করেন। পরবর্তীতে ১৯৮৯ সালে জেমস বন্ড সিরিজের লাইসেন্স টু কিল’এ দেখা যায় তাকে। এরপর বন্ড সিরিজে ০০৭ এর বস হিসেবে নিয়মিতই দেখা গেছে এই অভিনেত্রীকে।

৪. ম্যাগি স্মিথ: হলিউডে হ্যারি পটারের উপন্যাস থেকে নির্মিত সিরিজে প্রফেসর চরিত্রে অভিনয়ের জন্য অনেকেই তাকে চেনেন। কিন্তু বয়সকালে তাকে এমন দেখা গেলেও যৌবনে বেশ রূপবতী ছিলেন ইংরেজ অভিনেত্রী ম্যাগি স্মিথ। নাম ভূমিকায় অভিনয় করা তার সেরা ছবির মধ্যে ‘দি প্রাইম অব মিস জেন ব্রডি’ অন্যতম।

৫. এলিজাবেথ টেলর: প্রাচীন মিসরের রহস্যময় রাণী ক্লিওপেট্রা’র কথা মনে হলেই হলিউডের যে অভিনেত্রীর কথা সবার আগে মনের পর্দায় ভেসে ওঠে, তিনি এলিজাবেথ টেলর। অপরূপ সুন্দরী ইংরেজ এই নারী অভিনয় জগতে এসে অনেক পুরুষেরই মাথা ঘুরিয়ে দেন। ২০১১ সালে তার মৃত্যু হয়।

৬. হেলেন মিরেন: ৭২ বছর বয়সী ইংরেজ এই অভিনেত্রী ১৯৬৬ সাল থেকেই কিন্তু নানা চলচ্চিত্রে কাজ করছেন। ষাটের দশকে ‘দি লং গুড ফ্রাইডে’, ‘দি মিড সামার নাইট ড্রিম’এর মতো অসাধারণ ছবিতে নাম ভূমিকায় অভিনয় করেছেন তিনি।

৭. জেন সাইমোর: ১৯৭৩ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘লিভ এন্ড লেট ডাই’এ অভিনয় করা এই বন্ড গার্লকে এখন হয়তো অনেকেই ভুলে গেছেন। ৬৬ বছরের এই ইংরেজ নারী অভিনয় জগতে আসেন ১৯৬৯ সালে। এরপর টেলিভিশন এবং চলচ্চিত্র দু’টি মাধ্যমেই দাপটের সঙ্গে অভিনয় চালিয়ে গেছেন। ষাটের দশকের আবেদনময়ী অভিনেত্রী হিসেবে ধরা হয় তাকে। ০০৭ সিরিজে অভিনয় করা সেরা ১০ বন্ড গার্লদের তালিকায় রয়েছেন জেন সাইমোর।

৮. ইসাবেলা রোজেলিনি: ১৯৫২ সালে ইতালিতে জন্ম নেয়া এই অভিনেত্রী মডেলিং জগতে আসেন ২৮ বছর বয়সে। সেখানে সাফল্যের দেখা পাওয়ার পর ১৯৭৬ সালে ‘এ ম্যাটার অফ টাইম’র মাধ্যমে ইংল্যান্ডের চলচ্চিত্রে তার অভিষেক ঘটে। যুক্তরাষ্ট্রের ছবির জগতে পা রাখেন ১৯৮৫ সালে। হোয়াইট নাইটস, কুজিনস, ডেথ বিকামস হার, ফিয়ারলেস’সহ নানা ছবিতে প্রধান ভূমিকায় অভিনয় করেছেন ইসাবেলা। বয়স বাড়তে থাকলে ভোগ ম্যাগাজিনের প্রচ্ছদে জায়গা নেয়া এই নারী পরবর্তীতে লেখালেখি এবং সামাজিক কর্মকাণ্ডেই নিজেকে জড়িয়ে ফেলেন।