২১শে আগস্ট, ২০১৮ ইং, ৬ই ভাদ্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ১০ই জিলহজ্জ, ১৪৩৯ হিজরী

গ্রেপ্তার এড়াতে ‘সাধুবাবা’ সেজে মাজারে মাজারে ১৮ বছর! অত:পর..

মে ১৮, ২০১৮, সময় ৬:০০ পূর্বাহ্ণ









রফিকুল ইসলাম। চল্লিশ বছর বয়সী এই ব্যক্তির বাড়ি খাগড়াছড়ি জেলার পানছড়ির উল্টাছড়ি ইউনিয়নের মুসলিমনগর গ্রামে। বাবার নাম মো: মনির হোসেন।

আজ থেকে ২১ বছর আগে ১৯৯৭ সালে খাগড়াছড়ি সদর থানায় তার বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনের ১৯ (চ) ধারায় একটি মামলা হয়। সেই মামলায় দোষী প্রমাণিত হলে ওয়ারেন্ট জারী হয় তার নামে। কিন্তু পুলিশী গ্রেপ্তার এড়াতে পালিয়ে যান তিনি। এক্ষেত্রে তিনি পলাতক আসামীদের পালানোর বা আত্মগোপনের সব রকমের ধরণকে একেবারে টপকে গিয়েছেন।









কেননা, তিনি নিজ এলাকাতেই ছদ্মবেশ ধারণ করে দীর্ঘদিন ধরে অবস্থান করলেও পুলিশ তাকে চিহ্নিতই করতে পারেনি। কারণ, তিনি যে কখনো সাধুবাবা, কখনো দরবেশ ছদ্মবেশে থাকতেন! তবে দীর্ঘ ১৮ বছর তিনি এ ভাবে নিজেকে আড়ালে রাখলেও বুধবার (১৬ মে) রাতে ঠিকই ধরা পড়েছেন পুলিশের জালে।









পানছড়ি থানার অফিসার ইনচার্জ মো: মিজানুর রহমান সময়েরকণ্ঠস্বরকে জানালেন, প্রেপ্তার এড়াতে রফিকুল দীর্ঘ ১৮ বছর আইন শৃংখলা বাহিনীর চোখ ফাঁকি দিয়ে ‘সাধুবাবা’ সেজে দেশের বিভিন্ন মাজারে মাজারে ঘুরে বেড়াত। আমার জানতে পারি, কিছুদিন ধরে সে উল্টাছড়ি গায়েবি মাজারে আশ্রয় নিয়েছে। এমন তথ্যের ভিত্তিতে বুধবার রাত ১০টার দিকে দক্ষিণ উল্টাছড়ির গায়েবি মাজারে অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়।

ওসি বলেন, বৃহস্পতিবার দুপুরে তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।