Home / অপরাধ / স্বামী প্রবাসে, দেবরকে নিয়ে উধাও ভাবি; কি হবে ২ সন্তানের?

স্বামী প্রবাসে, দেবরকে নিয়ে উধাও ভাবি; কি হবে ২ সন্তানের?

পরকিয়া প্রেমের টানে দেবরের হাত ধরে অজানার উদ্দেশ্যে পাড়ি জমিয়েছেন ২ সন্তানের জননী ভাবি মিনা খাতুন (৩০)।

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলায় এ ঘটনাটি ঘটেছে।

সূত্রে জানা গেছে, দুই সন্তানের জননী মিনা খাতুন বেড়াকুচাটিয়া গ্রামের মালয়েশিয়া প্রবাসী রওশন আলীর স্ত্রী। তিনি প্রতিবেশী দেবর সিএনজি চালিত অটো রিকশার চালক শফিকুল ইসলামের (২৫) সঙ্গে পরকিয়া প্রেমের টানে অচিন সূখের আশায় উধাও হয়েছেন।

প্রবাসী রওশন আলী ও মিনা খাতুনের দীর্ঘ ১৪ বছরের সংসার জীবনে তাদের ১২ বছরের এক মেয়ে ও ৮ বছরের এক ছেলে সন্তান রয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৮ মার্চ) রাতে দেবর শফিকুল ইসলাম নিয়ে ভাবি মিনা খাতুন উধাও হন। তাদের পালিয়ে যাওয়ার তিন দিন হতে (রোববার পর্যন্ত) চললেও কোন হদিস পাওয়া যায়নি।

এ ঘটনায় মিনা খাতুনের শ্বশুর আফসার আলী শাহজাদপুর থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছেন।

এ বিষয়ে শাহজাদপুর থানার ওসি খাজা গোলাম কিবরিয়া গণমাধ্যমকে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি আরো জানান, এ ঘটনায় আফসার আলী বাদী হয়ে থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছেন।

মিনা খাতুনের শশুর আফসার আলী গণমাধ্যমকে জানান, ১৪ বছর আগে আমার ছেলে রওশন আলীর সঙ্গে নগরডালা গ্রামের মৃত ওহাব আলীর মেয়ে মিনা খাতুনের বিয়ে হয়। তাদের ঘরে ১২ বছরের এক মেয়ে ও ৮ বছরের এক ছেলে সন্তান রয়েছে। গত ৪ বছর আগে অধিক অর্থ উপার্জনের আশায় সুদূর মালয়েশিয়া পাড়ি জমায় রওশন আলী।

তিনি আরো বলেন, এই সময়ের মধ্যে প্রতিবেশী সিএনজি চালিত অটো রিকশা চালক শফিকুল ইসলামের সঙ্গে মিনা খাতুন অনৈতিক সম্পর্ক গড়ে তোলে।

আফসার আলী বলেন, বুধবার (৭ মার্চ) রাতে প্রকৃতির ডাকে সারা দিতে গিয়ে তিনি প্রতিবেশী শফিকুল ইসলাম ও পুত্রবধূ মিনা খাতুনকে অনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনরত অবস্থায় দেখে ফেলেন। এরপর দিন বৃহস্পতিবার (৮ মার্চ) রাতে তারা দু’জন অজানার উদ্দেশ্যে পাড়ি জমায়। এখন পর্যন্ত তাদের কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি।

About admin

Check Also

ব্রেকিংঃ অবশেষে জানা গেল তাসপিয়াকে যেভাবে হত্যা করে আদনানের গ্রুপ

আদনান-তাসপিয়ার প্রেমের সম্পর্ক ভালোভাবে নেয়নি তাসফিয়ার পরিবার। তাই আদনানকে ডেকে শাসায় তারা। আর এটাকে ভালোভাবে …