Home / বিনোদন / বাড়ি বাড়ি কাজ করতেন সুবাসিনী, তাকে নিয়ে দেবের ছবি

বাড়ি বাড়ি কাজ করতেন সুবাসিনী, তাকে নিয়ে দেবের ছবি

মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে কাজ করতেন সুবাসিনী দেবী নামের এক সাধারণ নারী। কিন্তু এখন তিনি একটি হাসপাতালের মালিক। খেয়ে না খেয়ে মানুষের জন্যই ফ্রিতে চিকিৎসা দিতেই হাসপাতালটি নির্মাণ করেছেন তিনি। এর পেছনে রয়েছে নিজের স্বামীর বিনা চিকিৎসায় মৃত্যুবরণ করার বেদনাদায়ক ঘটনা। সুবাসিনী দেবীর ব্যক্তিগত এমন গল্পেই এবার নতুন ছবি নির্মাণ করতে যাচ্ছেন অভিনেতা ও প্রযোজক দেব।

কিছু করার সৎ সাহস থাকলে অর্থের যোগান কোনো সমস্যায় নয়, এমনটাই মনে করতেন সুবাসিনী। আর তাইতো মানুষের বাড়ি গিয়ে টাকার বিনিময়ে কাজ করতেন যে নারী, সেই তিনিই নিজের শ্রমে ঘামে গড়ে তুলেছেন হিউম্যানিটি হাসপাতাল। যেখানে টাকার বিনিময়ে সমাজের যারা চিকিৎসা নিতে পারছে না, তাদেরকে বিনা পয়সায় চিকিৎসা দেয়া হয়।

খেয়ে না খেয়ে হাসপাতাল গড়ে তোলার পেছনে আছে বেদনার গল্প। সুবাসিনীর মুখ থেকে শোনা যায়, তার স্বামীর বিনা চিকিৎসায় মৃত্যু হওয়ার বিষয়টি কোনোভাবেই মেনে নিতে পারেননি তিনি। এতো অসহায় লেগেছিলো স্বামীর মৃত্যুর দিনে। আর সেদিনই তিনি মনে মনে এমন একটি হাসপাতাল গড়ে তোলার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। শপথ নেন, বিনা চিকিৎসায় কাছের কাউকে তিনি মৃত্যু বরণ করতে দিবেন না। এবং সত্যি সত্যি তার ইচ্ছার কাছে হার মানে অর্থের যোগান। একাই স্ট্রাগল করে গড়ে তুলেন একটি হাসপাতাল।

সুবাসিনী দেবী ছেলেকেও ডাক্তারি পড়িয়েছেন। মুমূর্ষু রোগীদের বিনা খরচে চিকিৎসার ব্যবস্থা করেছেন নিজের হাসপাতালে। এমন নারীর জীবনী নিয়েই এবার টলিউডে তৈরি হচ্ছে বায়োপিক। যার নাম ‘পদ্মশ্রী সুবাসিনী মিস্ত্রী’। আর এই ছবিটিই প্রযোজনা করতে এগিয়ে এসেছেন চিত্রনায়ক ও প্রযোজক দেব। ৮ মার্চ বিশ্ব নারী দিবসে একটি অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এমন একটি ছবির ঘোষণা দেন তিনি। যেখানে উপস্থিত ছিলেন স্বয়ং সুবাসিনী দেবী।

About admin

Check Also

মেয়েকে বিয়ে করতে চেয়েছিলেন মহেশ ভাট! কিন্তু কেন?

ছবিতে বিভিন্ন সময়ে নানা কারণে বিতর্কের ঝড় তুলেছে বলিউডের চলচ্চিত্র পরিচালক-প্রযোজক মহেশ ভাট। তিনি শুধু …