Home / ফটো গ্যালারি / এই ৯ দক্ষিণী তারকাদের জীবনসঙ্গিনীদের ছবি দেখলে অবাক হবেন

এই ৯ দক্ষিণী তারকাদের জীবনসঙ্গিনীদের ছবি দেখলে অবাক হবেন

দক্ষিণী তারকাদের ছবি দেখেন না এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া দুস্কর। কেরালার এমন কিছু সুপারষ্টার আছেন যাদের ভক্ত ও খ্যাতি বিশ্বব্যাপী। তাই এসব তারকাদের ব্যক্তিগত জীবন সম্পর্কে জানতে অনেকেরই আগ্রহ। আজ থাকছে দক্ষিণী তারকাদের জীবনসঙ্গিনী নিয়ে প্রতিবেদন। তাহলে দেখে নিন দক্ষিণী তারকাদের গ্ল্যামারস স্ত্রীদের।

১. মহেশ বাবু – নম্রতা শিরোদকর:

অন স্ক্রিনের পাশাপাশি অফ স্ক্রিনেও এই গ্ল্যামারাস জুটি দর্শকমহলে খুবই জনপ্রিয়। ২০০৫ সালে দক্ষিণী তারকা মহেশবাবুর সঙ্গে বিয়ে হল মডেল এবং বলিউড অভিনেত্রী নম্রতার। ১৯৯৩ সালে ‘মিস ইন্ডিয়া’র খেতাব জেতেন নম্রতা। ওই বছরই ‘মিস এশিয়া প্যাসিফিক’-এ প্রথম রানার আপ নির্বাচিত হন। ‘কাচ্চে ধাগে’, ‘বাস্তব: দ্য রিয়ালিটি’, ‘পুকার’সহ একাধিক ছবিতে অভিনয় করেছেন নম্রতা।

২, রজনীকান্ত – লাথা রঙ্গচারী:

কলেজ ম্যাগাজিনের জন্য সাক্ষাৎকার নিতে গিয়ে ‘থালাইভা’র সঙ্গে আলাপ লাথার। ১৯৮১ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি বিয়ে হয় দুজনের। ইংরাজি সাহিত্যে ‘মাস্টার্স অব আর্টস’ ডিগ্রি রয়েছে লাথার। ছবির প্রযোজনাতেও তিনি পারদর্শী। তার একটি প্রডাকশন হাউসও রয়েছে। আশির দশকে বেশ কিছু দক্ষিণী ছবিতে গানও গেয়েছেন লাথা।

৩. ধনুশ – ঐশ্বর্যা:

২০০৪ সালের ১৮ নভেম্বর রজনীকান্তের বড় মেয়ে ঐশ্বর্যাকে বিয়ে করেন দক্ষিণী সুপারস্টার ধনুশ। ঐশ্বর্যা এক জন ফিল্ম ডিরেক্টর এবং প্রশিক্ষিত ক্লাসিকাল ডান্সার। ধ্রুপদ নৃত্যে পারদর্শিতার জন্য তামিলনাড়ু সরকারের কাছ থেকে ‘কলাইমামানি’ পুরস্কার পেয়েছেন ঐশ্বর্যা। ২০১৬ সালে ঐশ্বর্যা রাষ্ট্রপুঞ্জের একটি সংগঠন ‘ইউএন ওম্যান’-এর জন্য ভারতের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করেন এবং ‘গুডউইল অ্যাম্বাসাডর’ নির্বাচিত হন।

৪. সুরিয়া – জ্যোতিকা:

তামিল ছাড়াও হিন্দি, তেলুগু, মালায়াম ছবিতে জ্যোতিকা খুবই পরিচিত মুখ। ২০০৬ সালের ১১ সেপ্টেম্বর সহ-অভিনেতা এবং দীর্ঘ দিনের বন্ধু সুরিয়াকে বিয়ে করেন তিনি। ‘পুভেল্লাম কেত্তুপার’, ‘সিল্লুনু ওরু কাধাল’-সহ একাধিক দক্ষিণী ছবিতে দু’জনকে একই সঙ্গে দেখা গিয়েছে।

৫. রাম চরণ – উপাসনা:

তেলুগু স্টার রাম চরণকে বলিউড ছবি ‘জঞ্জির’-এ প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার বিপরীতে দেখা গিয়েছিল। ২০১২ সালে অ্যাপোলোর এগ্‌জিকিউটিভ চেয়ারম্যান প্রতাপ সি রেড্ডির নাতনি উপাসনাকে বিয়ে করেন চরণ। উপাসনা নিজেও অ্যাপোলো চ্যারিটির ভাইস-চেয়ারম্যান পদে রয়েছেন। পাশাপাশি, ‘বি পজিটিভ’ ম্যাগাজিনের তিনি চিফ এডিটর।

৬. জুনিয়র এনটিআর – প্রনতি:

জুনিয়র এনটিআর একজন তেলুগু অভিনেতা, কুচিপুড়ি ড্যান্সার এবং গায়ক। ২০১১ সালের ৫ মে লক্ষ্মী প্রনতির সঙ্গে বিয়ে হয় তার। প্রনতির বাবা শ্রীনিবাস রাও তেলুগু সংবাদমাধ্যম ‘স্টুডিও এন’-এর কর্ণধার।

৭. অল্লু অর্জুন – স্নেহা রেড্ডি:

চাইল্ড অ্যাক্টর থেকে অভিনয় জীবন শুরু করে অল্লু এখন দক্ষিণী ছবির অন্যতম সুপারস্টার। সোশ্যাল মিডিয়াতেও বেশ সক্রিয় এই অভিনেতা। ২০১১ সালে তেলঙ্গানার জনপ্রিয় শিক্ষাবিদ কাঞ্চরা চন্দ্রশেখর রেড্ডির মেয়ে স্নেহার সঙ্গে বিয়ে হয় অল্লুর।

৮. বিজয় – সঙ্গীতা:

দীর্ঘদিনের প্রেমের পর সঙ্গীতার সঙ্গে চার হাত এক হয় দক্ষিণী সুপারস্টার বিজয়ের। রূপালি পর্দার সঙ্গে সঙ্গীতা বা তার পরিবারের কোনও যোগাযোগ নেই। সঙ্গীতার বাবা একজন শিল্পপতি। শোনা গিয়েছে, বিজয়ের ছবি দেখেই সঙ্গীতা তার প্রেমে পড়েন।

৯. চিরঞ্জিবী – সুরেখা:

চিরঞ্জিবী একাধারে সুপারস্টার এবং রাজনীতিবীদ। দক্ষিণী ছবিতে তার ব্যাপক জনপ্রিয়তা। জানেন কি, চিরঞ্জিবীর স্ত্রী সুরেখার পরিবারও অভিনয় জগতের সঙ্গে যুক্ত। সুরেখার বাবা পদ্মশ্রী প্রাপ্ত তেলুগু অভিনেতা আল্লু। চিরঞ্জিবী এবং সুরেখার ছেলে রাম চরণ তেজাও তেলুগু এবং বলিউডে দাপটের সঙ্গে অভিনয় করছেন।

About admin

Check Also

ব্রা বেড়া! এখানে কেন অন্তর্বাস ঝুলিয়ে রেখে যান মহিলারা

অন্তর্বাস কখনও কখনও অন্তরের বাসা হয়েও দাঁড়ায়, জানেন কি? হ্যাঁ, এমনই এক জায়গার খবর আপনাকে …